বুধবার ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

নরসিংদীতে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষে

রবিবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২১
220 ভিউ
নরসিংদীতে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষে
Spread the love

মাহবুব আলম সেলিম:(নিজস্ব সংবাদদাতা):-নরসিংদীর রায়পুরায় উপজেলায় মির্জাপুর ইউনিয়নের মাহমুদাবাদ গ্রামে বিন-ইয়ামিন অর্গানিক ফিস ফার্মে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষ করে সফলতার স্বপ্ন দেখছেন মো রফিকুল ইসলাম রফিক মাস্টার। বয়োফ্লক এমন একটি পদ্ধতি যা পানির মধ্যে বিশেষ কায়দায় ব্যাকটেরিয়া তৈরি করা হয় এবং সেটাই মাছের খাবারকে রিসাইকেল করে। আবার এটা পানি পরিশোধন করতেও সক্ষম।তবে মনে রাখতে হবে পানিতে নাইট্রোজেন আর কার্বনের ব্যালেন্স ঠিকমতো না হলে এটা কাজ করবে না এবং মাছ মারা যাবে। অর্থাৎ পদ্ধতিটির সঠিক প্রয়োগ না হলে মাছের রোগ হবে বা মাছ মারা যাবে। এ কারণে বায়োফ্লক পদ্ধতির জন্য আলাদা ব্যবস্থাপনার দরকার হয়। এ পদ্ধতির মাছ চাষের অবকাঠামোতে সার্বক্ষণিক বিদ্যুতের প্রয়োজন হবে এবং মাছের ট্যাংকের পানি পরিবর্তন করা যাবে না। অনেকে বায়োফ্লক পদ্ধতির ক্ষেত্রে লবণাক্ত পানি ব্যবহারের পরামর্শ দেন,যা ঠিক নয়। সাধারণভাবে মাছ চাষের ক্ষেত্রে আমরা একটি নির্দিষ্ট সময়ে প্রতি শতাংশে আড়াইশো গ্রাম লবণ দিতে বলি, যা মাছকে রোগমুক্ত রাখতে সহায়তা করে।এখানেও সেটি হতে পারে। তবে বায়োফ্লকের জন্য লবণাক্ত পানি লাগবে,এটি সঠিক তথ্য নয়”।এটি এমন একটি পদ্ধতি যেখানে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় অল্প জায়গায় বিপুল পরিমান মাছ চাষ করা হয়।পানির তাপমাত্রা ২৪-৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখতে হবে, আর পানির রং হবে সবুজ,হালকা সবুজ বা বাদামী। এর দ্রবীভূত অক্সিজেন,পিএইচ,ক্ষারত্ব,খরতা, ক্যালসিয়াম,অ্যামোনিয়া,নাইট্রেইট,ফসফরাস,আয়রন, পানির স্বচ্ছতা,গভীরতা,লবণাক্ততা,এগুলোসহ সবকিছুর সুনির্দিষ্ট পরিমাণ মেনে ব্যবস্থা নিতে হয়।এরপর পানিতে দরকারি সব উপাদান ঠিক মতো দিয়ে ফ্লক তৈরি করতে হয়, যার জন্য দরকার হয় সার্বক্ষনিক অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা।ঠিক মতো ফ্লক তৈরি হলে পানির রং হবে সবুজ বা বাদামি,আর পানিতে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা দেখা যাবে।
বায়োফ্লক পদ্ধতি নরসিংদীতে এ মূহুর্তে সব চেয়ে প্রকল্প করছেন রায়পুরায় মো রফিকুল ইসলাম। প্রচলিত পদ্ধতিতে মাছ চাষের চেয়ে এই পদ্ধতিটি সম্পূর্ণ আলাদা।এখানে টেকনিক্যাল বিষয়গুলো সুচারুরূপে দেখতে হয়। আমি ৩ টি ট্যাংকে তেলাপিয়া,পাংগাস,শিং,কই চাষ হচ্ছে।আগামী মাসে আরও ২ টি ট্যাংক প্রস্তুত মাগুর, গোলশা,পাবদাসহ সব ধরনের মাছ চাষ করার ইচ্ছে আছে। বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষি মো রফিকুল ইসলাম রফিক মাস্টার আমাদের নরসিংদী ডটকমকে বলেন,গত ২০১৯ সালে সৌদি আরব হজ্জ পালন করতে যাই প্রবাসী বন্ধু আমাকে পরামর্শ দেন বায়োফ্লকের। তার দেয়া পরামর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দেশে তারি পরিচিত বন্ধুর নিকট আমাকে পাঠানো হয়। দীর্ঘদিন একটি বায়োফ্লক ফার্মে চাষের ওপর প্রশিক্ষণ নেই।২০২০ সালে সল্প পরিসরে বিন-ইয়ামিন অর্গানিক ফিস ফার্ম নামে কার্যক্রম শুরু করি। ৪ মাস প্রথম ধাপে কিছুটা সফলতা দেখতে পাই। লাভ জনক মনে করে আরও ২ টি প্লান করি। চলনান তিনটি ট্যাংকিতে পাংগাস,তেলাপিয়া, শিং মাছ আগামী মাসে বিক্রি করতে পারবো। নতুন ২টি ট্যাংকি প্রস্তুত করা হয়েছে ।সময় করে দু’বেলা খাবার পর্যবেক্ষণ করলেই হয়। এই পদ্ধতির ফলে মাছের মলও পুনরায় খাবারে পরিনত হয়। পারিবারের যে কেউ তদারকি করতে পারে। কাজের লোক নিয়োজিত করার প্রয়োজন নেই। যার ফলে মাসিক ব্যায় কমে যায়। যেমন একটি বড় পুকুরে এত মাছ করা কঠিন সেখানে কম যায়গায় ৪০দ্ধ২০ ফিট ট্যাংকে ১০ হাজার তেলাপিয়া চাষ করতে পেরেছি। প্রত্যাকটি মাছ কম কর গড়ে হাফ কেজি হলেও সর্বনিম্ন ৩ হাজার কেজি।১ শত টাকা হলেও ৩ লক্ষ। ভালোভাবে নিয়ম মেনে সবকিছু করতে পারলে লাভ। কিন্তু ক্ষতি হলে হবে বড় ক্ষতি। আমার খুদ্র বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করা। পর্যায়ক্রমে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে সকল প্রকার মাছ চাষ করে রাস্ট্রের মৎস খাতকে এগিয়ে নিতে নিজেকে সম্পৃক্ত করেছি। উপজেলা মৎস অফিসার কে বহুবার ফার্মটি পরিদর্শনে আসার অনুরোধ করেছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত আসেননি। সরকারি কোনো প্রকার পরামর্শ সহযোগিতা পাইনি। সহযোগিতা পেলে আরও সফলতার সাথে এগিয়ে যেতে পারবো । বেকার যুবক যুবতীরা সাফল উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত হতে আগ্রহী হবে। রায়পুরা উপজেলার সিনিয়র মৎস অফিসার মো হাবিব ফরহাদ আলম বলেন, বায়োফ্লক এমন একটি পদ্ধতি ব্যাক্টেরিয়া কলনী যা দ্বারা মাছ মাছ চাষ করা হয়। পুষ্টি ও প্যাটের উৎস থাকে। যা মাছের মলকে খাদ্য পরিনত করে। যার ফলে খাদ্যের পরিমাণ কম ব্যায়ও কমে যায়। বাড়ির আংগিনায় সল্প জায়গায় অধিক পরিমাণে মাছ চাষ করা সম্ভব। মাঠি, পানি দোষন গুলো কম হয়। যা পরিবেশের ভারসাম্য বজায় থাকে। কৃষি জমির সদ ব্যাবহার হবে। জমির চাপ কমবে কৃষি ব্যাহত হবে না। আধুনিক পদ্ধতিতে মাছ চাষের মধ্যেমে বেকার সমস্যা সমাধানে তৈরি হবে নতুন নতুন উদ্যোক্তা।আমাদের এখানে সবসময় পরামর্শ দেয়ার সুযোগ আছে। রয়েছে আধুনিক যন্ত্রপাতি যার মাধ্যমে এইচ,এমুনিয়া,টিভিএস,অক্সিজেন সহ সকল প্রকার পরীক্ষার করা যায়।বেকার যুবক যুবতীদেরকে বায়োফ্লকে মাছ চাষে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি।

advertisement

Posted ২:২২ অপরাহ্ণ | রবিবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২১

Amader Narsingdi |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

বিআরটিএর সামনে বিক্ষোভ করছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা

বাস চাপায় সহপাঠীর মৃত্যুর সুষ্ঠু বিচার, নিরাপদ সড়কসহ… [বিস্তারিত]

বাংলা একাডেমি সভাপতি ও জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম আর নেই

একুশে পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট নজরুল গবেষক জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল… [বিস্তারিত]

চট্টগ্রামে সমাবেশ চলাকালীন হঠাৎ মঞ্চ ভেঙে পড়ে

দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার… [বিস্তারিত]

Contact Information
প্রধান উপদেষ্টা: আল মুজাহিদ হোসেন তুষার।
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মাকসুদুর রহমান।
প্রকাশক ও সম্পাদক: মাহবুব সৈয়দ
সহকারী সম্পাদক: রাসেল মিয়া।
প্রধান কার্যালয়
ঘোড়াশাল পোষ্ট অফিস রোড, পলাশ, নরসিংদী।
Phone: +8801912528571
Phone: +8801711900458
Email: narsingdibd24@gmail.com